আজকের সকল শিরোনাম
ফটোগ্যালারি
বৃহস্পতিবার, ঢাকা ॥ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ॥ ২৯ মাঘ ১৪২২ ॥ ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজারে ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা      শাহজালালে ব্যাক্তির শরীরে আড়াই কেজি স্বর্ণ      হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির প্রশংসায় বার্নিকাট      কৃষি সচিব হচ্ছেন আনোয়ার ফারুক       ‘মন্ত্রীরা বেতন নেয় বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার জন্য’      নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাতে ব্যর্থ হলে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী      কারিনার ‘ক্লিন ঢাকা’ কনসার্ট স্থগিত      
দেশের জন্য চতুর্থ স্বর্ণ
Published : Thursday, 11 February, 2016 at 12:00 AM, Update: 11.02.2016 12:09:21 AM
ক্রীড়া প্রতিবেদক
দেশের জন্য চতুর্থ স্বর্ণ শুটিংয়ে ৫০ মিটার ফ্রি পিস্তলের শুট-অফে উঠেছিলেন শাকিল আহমেদ, আনোয়ার হোসেন ও মহেন্দ্র কুমার। স্বর্ণজয়ের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় শেষ পর্যন্ত জয় হলো বাংলাদেশের শাকিলের। সেনাবাহিনীর এই শুটার গতকাল ১৮৭.৬০ স্কোর করে জিতে নিয়েছেন স্বর্ণপদক। আর বাছাইয়ে সেরা ওমকার ১৮৭.৩ স্কোর নিয়ে হয়েছেন দ্বিতীয় সেরা। ১৬৫.৯ স্কোর করে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন পাকিস্তানের শুটার কলিমুল্লাহ খান। এই নিয়ে এসএ গেমসে ৪টি স্বর্ণ জিতল বাংলাদেশ।
শাকিলের পাশাপাশি আনোয়ার ও মহেন্দ্র আরেকটু ভালো করতে পারলে এই ইভেন্টের দলগত স্বর্ণটিও হতে পারত বাংলাদেশের।
কিন্তু আনোয়ার ষষ্ঠ ও মহেন্দ্র অষ্টম হওয়ায় বাংলাদেশকে দলগত ব্রোঞ্জ নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়।
এর আগে বাংলাদেশকে তিনটি স্বর্ণ জিতিয়েছেন দুই মেয়ে মাবিয়া আক্তার (সীমান্ত) ও মাহফুজা খাতুন (শিলা)। ভারোত্তোলন থেকে প্রথম স্বর্ণ এনেছেন মাবিয়া, এরপর সাঁতার থেকে বাকি দুটি স্বর্ণ জিতিয়েছেন মাহফুজা।
স্বর্ণজয়ে উচ্ছ্বসিত শাকিল বলেন, ‘আমি খুবই খুশি। এত খুশি যে, ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। সত্যিকার অর্থে কখনো ভাবিনি এবারের গেমসে স্বর্ণপদক জিতব। তবে সেরা ফলাফলের জন্য আমার চেষ্টার কমতি ছিল না। যে কারণে শেষ পর্যন্ত সফল হয়েছি।’
কষ্ট করেই এই ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন শাকিল। তা অকপটে স্বীকারও করেন। তিনি বলেন, ‘ভারতীয়দের প্রস্তুতি আমাদের চেয়ে অনেক ভালো। তাদের হারাতে অনেক মনোসংযোগের প্রয়োজন হয়েছে। শেষ পর্যন্ত জয়ী হতে পারায় খুব ভালো লাগছে।’
দেশের হয়ে এসএ গেমসে সেরা সাফল্যের পেছনে তার সংস্থা সেনাবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন শাকিল। তিনি বলেন, ‘সেনাবাহিনী আমাদের অনেক সহযোগিতা করেছে। তাদের সাহায্য-সহযোগিতা ছাড়া এই সাফল্য পাওয়া সম্ভব হতো না। তাদের কাছে আমি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞ। বাংলাদেশের যে কোনো ক্রীড়াবিদের জন্য এই গেমসে স্বর্ণ জয় বেশ গৌরবের।’
১২তম এসএ গেমসে ৫০ মিটার পিস্তল ইভেন্টে শুধু স্বর্ণ জয়ই নয়, চমকও রয়েছে। শুটিংয়ে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সাফল্য এয়ার রাইফেল ইভেন্টে। ১৯৯৩ সালের ঢাকা সাফ গেমসে পিস্তলে এই পদক জিতেছিলেন শুটার আতিকুর রহমান। অবশ্য ১৯৯১ কলম্বো সাফেও ব্যক্তিগত ইভেন্টে পিস্তলে স্বর্ণ ছিল আতিকুরের। দুই দশকের বেশি সময় পর তাই আবার পিস্তলে ব্যক্তিগত ইভেন্টে সেরা হলেন বাংলাদেশের কোনো শুটার।
১৯৯১ সালের এসএ গেমসে শুটিং যোগ হয় প্রথমবার। সেবার বাংলাদেশ তিনটি স্বর্ণ জিতেছিল। পরের আসরে মিলেছিল সাতটি।
১৯৯৫ সালের এসএ গেমসে শুটিং থেকে বাংলাদেশ পেয়েছিল পাঁচটি স্বর্ণপদক। গত আসরেও এই ডিসিপ্লিন থেকে তিনটি স্বর্ণপদক পায় বাংলাদেশ। গত এগারো আসরে এই ডিসিপ্লিন থেকে প্রাপ্তি ছিল ২১টি স্বর্ণ, ২৮টি রৌপ্য ও ৪০টি ব্রোঞ্জপদক।



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত