আজকের সকল শিরোনাম
ফটোগ্যালারি
বৃহস্পতিবার, ঢাকা ॥ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ॥ ২৯ মাঘ ১৪২২ ॥ ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজারে ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা      শাহজালালে ব্যাক্তির শরীরে আড়াই কেজি স্বর্ণ      হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির প্রশংসায় বার্নিকাট      কৃষি সচিব হচ্ছেন আনোয়ার ফারুক       ‘মন্ত্রীরা বেতন নেয় বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার জন্য’      নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাতে ব্যর্থ হলে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী      কারিনার ‘ক্লিন ঢাকা’ কনসার্ট স্থগিত      
মেধাবী শিক্ষার্থীদের অনুদান
আমরা এখন অনেক সতর্ক : প্রধানমন্ত্রী
Published : Thursday, 11 February, 2016 at 12:00 AM, Update: 11.02.2016 12:12:33 AM
নিজস্ব প্রতিবেদক
আমরা এখন অনেক সতর্ক : প্রধানমন্ত্রীসরকার পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মন্ত্রিসভা অতীতের চেয়ে এখন ‘অনেক সতর্ক’। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন অনেক সতর্ক। আমরা ভালো কাজ করে গেলেও সরকার পরিবর্তন হলে, অন্য সরকারের দেশের প্রতি মমত্ববোধ না থাকলে, দেশের মানুষের প্রতি যদি তাদের কোনো দায়িত্ববোধ না থাকে, তাহলে যে কোনো সময় যে কোনো কিছু বন্ধ করে দিতে পারে। অতীতে বিএনপি-জামায়াত সরকার এমন অনেক প্রকল্পই বন্ধ করে দিয়েছিল।
উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় বর্তমান সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা ও আগ্রহের বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৯৯৬ সালে তার সরকার ক্ষমতায় আসার পর অনেক মেধাবীকে গবেষণার জন্য বিদেশে পাঠিয়েছিল। কিন্তু ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে অনেকের গবেষণার মাঝপথে তা বাতিল করে দেয়। তাই সরকার পরিবর্তন হলেও কেউ যেন দেশে বিজ্ঞান গবেষণার জন্য দেওয়া ফেলোশিপ বন্ধ করতে না পারে, সে লক্ষ্যে সরকার বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপকে একটি ট্রাস্টে রূপান্তর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
গতকাল বুধবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দেশে-বিদেশে বিজ্ঞান বিষয়ে উচ্চতর শিক্ষা ও গবেষণার জন্য মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বঙ্গবন্ধু ফেলোশিপ, এনএসটি ফেলোশিপ ও গবেষকদের মাঝে বিশেষ অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আফম রুহুল হক। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব সিরাজুল হক খান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে এ বছর ৫০ জন এমএস, ১৬০ জন পিএইচডি, ১১ জন পোস্ট ডক্টরাল স্টুডেন্ট এবং গবেষককে দেশে-বিদেশে উচ্চশিক্ষা-গবেষণার জন্য ফেলোশিপ দেওয়া হয়।
নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের মাধ্যমে বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তির বড় ধরনের বাঁকবদল হবে এমন মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা মনে করি বাংলাদেশের ইতিহাসে এটা একটা টার্নিং পয়েন্ট। আগে যারা বাংলাদেশকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করত, মনে করত বাংলাদেশ ভিক্ষা চেয়ে চলবে। এখন তারা দেখছেÑ  না, বাংলাদেশ তা নয়। বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধে বিজয় অর্জনকারী দেশ। আমাদের কেউ দাবায়ে রাখতে পারবে না।
বাংলাদেশকে শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করাই সরকারের লক্ষ্য জানিয়ে সরকারপ্রধান বলেন, এখানে যে জ্বালাও-পোড়াও, মানুষ হত্যা, ছাত্রছাত্রী কলেজ-স্কুলে যেতে পারবে না অথবা বোমা হামলার শিকার হবে, শিশুদের হত্যা করা হবেÑ এই দৃশ্য আমরা দেখতে চাই না। বাংলাদেশের কেউ এটা চায় না। শেখ হাসিনা বলেন, সবাই নিরাপদে চলবে, সুন্দরভাবে বাঁচবে, জ্ঞান-বিজ্ঞানে শিক্ষা ও উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করবে, উন্নত জীবন ধারণ করবেÑ সেটাই আমাদের লক্ষ্য।
বিশ্বব্যাপী প্রযুক্তির বিকাশের সঙ্গে-সঙ্গে বাংলাদেশের প্রজন্মকে সময়োপযোগী করে গড়ে তুলতে তথ্য-প্রযুক্তিতে সরকারের নানা পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে তিনি লেখাপড়ার পাশাপাশি সংস্কৃতিচর্চা ও খেলাধুলাতেও শিক্ষার্থীদের মন দেওয়ার পরামর্শ দেন। আর্থিক প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশ্বের কাছে আজ বাংলাদেশ বিস্ময়। এ প্রবৃদ্ধি কোনো জাদুবলে হয়নি। দেশ ও জাতির প্রতি কর্তব্যবোধ, মমত্ববোধ ও ভালোবাসা থাকলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব।




সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত