আজকের সকল শিরোনাম
ফটোগ্যালারি
বৃহস্পতিবার, ঢাকা ॥ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ॥ ২৯ মাঘ ১৪২২ ॥ ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজারে ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা      শাহজালালে ব্যাক্তির শরীরে আড়াই কেজি স্বর্ণ      হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির প্রশংসায় বার্নিকাট      কৃষি সচিব হচ্ছেন আনোয়ার ফারুক       ‘মন্ত্রীরা বেতন নেয় বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার জন্য’      নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাতে ব্যর্থ হলে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী      কারিনার ‘ক্লিন ঢাকা’ কনসার্ট স্থগিত      
ছাত্রলীগ-অশিক্ষিত-রিকশা শ্রমিক-মাদক-ধর্ষণ মামলার আসামিরাও নেতা
ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে সার্কাস
Published : Thursday, 11 February, 2016 at 12:00 AM, Update: 11.02.2016 12:12:17 AM
সানাউল হক সানী
ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে সার্কাসআমাদের দেশে গ্রাম-গঞ্জে আবহমানকাল ধরে চলা একটি প্রিয় বিনোদন সার্কাস। উইকিপিডিয়ার তথ্যানুসারে সার্কাস এক ধরনের বিশেষ বিনোদনকেন্দ্র বা বিনোদন প্রক্রিয়া বিশেষ। এর মাধ্যমে আবালবৃদ্ধবনিতা নির্মল আনন্দ ও চিত্তাকর্ষক বিষয়াবলী সম্পর্কে সম্যক অবগত হন। তবে বর্তমানে দেশের অন্যতম বৃহৎ ছাত্রসংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলে কমিটি গঠন নিয়ে এমন সার্কাসই চলছে বলে মনে করছেন খোদ সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। রাজনৈতিক মহলে তাদের কার্যক্রম বিনোদনের সৃষ্টি করছে বলেই অভিমত রাজনৈতিক বোদ্ধাদের।
বিএনপির এই অঙ্গসংগঠনটির সর্বশেষ তিনটি কমিটি গঠন নিয়েই বিদ্রোহের সূচনা হয়। পরবর্তী সময়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আগুন-ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে। এমনকি আগুনে পোড়ানো হয় দলীয় প্রধানের ছবিও। প্রতিবারই বিদ্রোহীদের প্রতি নমনীয় হতে বাধ্য হয় বিএনপির হাই কমান্ড। কমিটির বিপক্ষে অবস্থান নেওয়াদের এক সময়ে দলে গুরুত্বপূর্ণ পদও দেওয়া হয়। ফলে প্রতিবারই বিদ্রোহ একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া হিসেবে দেখা দিয়েছে এ সংগঠনটিতে। ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি সরকারের পতনের পর ছাত্রদলের তিনটি কমিটি গঠন করা হয়Ñ সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু-আমিরুল ইসলাম আলিম, আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল-হাবিবুর রশিদ হাবিব, রাজিব আহসান-আকরামুল হাসান। তবে প্রতিবারই প্রবল বিদ্রোহের মুখে পড়তে হয় সংগঠনটিতে। এর জের ধরেই ২০১০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদ্রোহী ও ছাত্রলীগের যৌথ হামলার শিকার হন সংগঠনটির তৎকালীন সভাপতি সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু। এ সময় মারধরে তার মাথা ফেটে যায়। এরপর ক্যাম্পাস থেকে বিতাড়িত হলে আজ পর্যন্ত ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারেনি এক সময়ের শক্তিশালী এ ছাত্রসংগঠনটি। তবে মূল দল বিএনপির বর্তমানের সংকটময় মুহূর্তে ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছিলেন নেতাকর্মীরা। কিন্তু বরাবরের মতো এবারও অভিযোগ উঠেছে অযোগ্য ও নিষ্ক্রিয়দের পদ দেওয়ার। এমনকি ছাত্রলীগের পদধারী ও ছাত্রলীগের সঙ্গে সম্পৃক্তদেরও দেওয়া হয়েছে সংগঠনটির বিভিন্ন ইউনিটের গুরুত্বপূর্ণ পদ। এ সংক্রান্ত কিছু প্রমাণাদি আমাদের সময়ের হাতেও এসেছে। ফলে সংগঠনটির কিছু নেতাকর্মী আবারও বিদ্রোহ ঘোষণা করেন বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে। আর এ নিয়ে শুরু হয় পার্টি অফিস দখলের রাজনীতি। গত সোমবার বিদ্রোহীরা পার্টি অফিসে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালায় এবং আসবাবপত্রে আগুন ধরিয়ে দেয়। তারা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ম্যুরাল ও বিএনপির বর্তমান চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছবি ভাঙচুর করেন এবং তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন।
এরপরও থেমে যায়নি আন্দোলন। মঙ্গলবার ও গতকাল ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। বিদ্রোহীদের নেতৃত্বে সংগঠনটির বড় কোনো নেতাদের দেখা না গেলেও সহ-সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকারের অনুসারীরা বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করছেন।
এদিকে ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নতুন নেতাদের বিরুদ্ধে রয়েছে বিস্তর অভিযোগ। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখায় রফিকুল ইসলাম রফিককে সভাপতি এবং আসিফুর রহমান বিপ্লবকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। অভিযোগ উঠেছে, নবগঠিত কমিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফিক বিবাহিত এবং দুই সন্তানের জনক। সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান খলিল, মনিরুজ্জামান খান মনির ও জিকরুল হাসান বিবাহিত এবং ব্যবসায়ী। সাধারণ সম্পাদক আসিফুর রহমান বিপ্লব ব্যবসায়ী ও এক সন্তানের জনক।
এদিকে ছাত্রদল সভাপতি রাজিব আহসান ও সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসানকে অযোগ্য আখ্যা দিয়ে নবগঠিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা কমিটি থেকে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন যুগ্ম-সম্পাদক মুস্তাকিম বিল্লাহ।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রদলের নবগঠিত কমিটির ৮ নেতা একযোগে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। পদত্যাগকারী ছাত্রদল নেতারা হলেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি মুরাদ হোসেন হীরা, নবিনুর রহমান নবীন, রাব্বি হাসান, ফয়সাল হোসেন, ইব্রাহিম খলিল বিপ্লব, শাহরিয়ার হক মজুমদার শিমুল, যুগ্ম সম্পাদক ইসরাফিল চৌধুরী সোহেল, ওয়াসিম আহমেদ অনীক। এদিকে কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর লিখিত পদত্যাগপত্রে ছাত্রদল নেতারা বলেন, বর্তমান কমিটির শীর্ষ পদে এমন ব্যক্তিদের পদায়ন করা হয়েছে যারা ক্যাম্পাসের সর্বমহলে ছাত্রলীগের বি-টিম হিসেবে পরিচিত। যাদের অতীতে শাখা ছাত্রদলের কমিটিতে একদিনের জন্যও দেখা যায়নি। রাজনীতির মাঠে যারা জাবি শাখা ছাত্রদলের অধিকাংশ নেতাকর্মীদের তুলনায় অনুজ।
এদিকে শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের আহ্বায়ক মনোনিত করা হয়েছে শফিকুর রহমান নোবেলকে। তবে আমাদের সময়ের পাওয়া কয়েকটি ছবিতে দেখা যায় ছাত্রলীগের মিছিলের সামনের সারিতে রয়েছেন এই নেতা। ছাত্রদলের কয়েকজন কর্মী অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরেই তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এরপরও তাকে ছাত্রদলের সভাপতি করা হয়েছে। একই চিত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল কমিটিতে। ১০ জনেরও বেশি ছাত্রলীগ নেতাকে ছাত্রদলের পদ দেওয়া হয়েছে। এসব নেতা ছাত্রদলের সঙ্গে তাদের সংশ্লিষ্টতার কথা অস্বীকার করছেন।
এদিকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে ভ্যান-শ্রমিক থেকে শুরু করে মাদক ব্যবসায়ীদেরও স্থান দেওয়া হয়েছে। আমাদের সময়ের অনুসন্ধানে জানা যায়, তৃতীয় শ্রেণি পাস আজিজুর রহমান শাহীনকে সহসাংগঠনিক সম্পাদক, ৭ম শ্রেণি পাস শ্যামল আহামেদ রাসেলকে সহসাংগঠনিক সম্পাদক, এসএসসি পাস নুর সালামকে যুগ্ম সম্পাদক করা হয়েছে যিনি ২০০২ সালে মাদকসহ গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। এছাড়া তিনি ৩ সন্তানের বাবা। তার বড় ছেলে এ বছর এসএসসি পরীক্ষার্থী। রিকশা শ্রমিক সোহাগকে করা হয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। যাত্রাবাড়ীর বোতাম ব্যবসায়ী ও ৫ম শ্রেণি পাস আবু সাঈদকে সদস্য, ছাতা মেরামতকারী ও ৪র্থ শ্রেণি পাস পলাশ সদস্য, শিক্ষিকা ধর্ষণ মামলার আসামি সাজ্জাদ হোসেন রুবেলকে ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাফিজ বাবু প্রচার সম্পাদক। এসএসসি পাস কামরুজ্জামান জুয়েলকে মহানগর পশ্চিমের সভাপতি, কোনো পড়াশোনা না করা আবুল কালাম আজাদ লেলিনকে সহসভাপতি, পল্লবী থানা আওয়ামী মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমীন বীনার ছোট ভাই ও এসএসসি পাস করতে না পারা মাসুদকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়েছে।
সার্বিক বিষয়ে জানতে ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ফোন করলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক সাত্তার পাটোয়ারি বলেন, যথেষ্ট যাচাই-বাছাই করেই কমিটিতে পদ দেওয়া হয়েছে। অযোগ্য কাউকে নেতা বানানো হয়নি। অতীতের ত্যাগ আর আন্দোলনের ভূমিকার কথাও পদ দেওয়ার ক্ষেত্রে বিবেচনা করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত