আজকের সকল শিরোনাম
ফটোগ্যালারি
বৃহস্পতিবার, ঢাকা ॥ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ॥ ২৯ মাঘ ১৪২২ ॥ ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
সংবাদ শিরোনাম :
কক্সবাজারে ডেইলি স্টার সম্পাদকের বিরুদ্ধে মানহানি মামলা      শাহজালালে ব্যাক্তির শরীরে আড়াই কেজি স্বর্ণ      হাসিনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির প্রশংসায় বার্নিকাট      কৃষি সচিব হচ্ছেন আনোয়ার ফারুক       ‘মন্ত্রীরা বেতন নেয় বিএনপির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার জন্য’      নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম চালাতে ব্যর্থ হলে ব্যবস্থা: শিক্ষামন্ত্রী      কারিনার ‘ক্লিন ঢাকা’ কনসার্ট স্থগিত      
বইপ্রেমীরা গানও শুনছেন
Published : Thursday, 11 February, 2016 at 12:00 AM
সানাউল হক সানী
বইমেলা বাঙালির প্রাণের উৎসব। টানা তিন দশক ধরে চলা এ মেলার আবেদন বাড়ছে দিন দিন। বইপ্রেমীরা সারা বছর অপেক্ষায় থাকেন এই মেলার। মেলায় অনেকে যেমন বই কিনতে আসেন, স্টলে স্টলে ঘুরে বই কেনেন; ঠিক তেমনি অনেকে আসেন দলবেঁধে ঘুরতে। ছোট ছোট আড্ডায় জমে ওঠে মেলা। তবে সন্ধ্যার পর এই দর্শনার্থীদের উল্লেখযোগ্য অংশ ভিড় জমান বাংলা একাডেমির মূল মঞ্চে। তাদের বাড়তি আকর্ষণ থাকে মেলামঞ্চের অনুষ্ঠানকে ঘিরে।
প্রতিদিন বিকাল চারটা থেকে এখানে বিষয়ভিত্তিক আলোচনা হয়। দেশের প্রথিতযশা বুদ্ধিজিবী, সাহিত্যবিশারদরা আলোচনা করেন সমসাময়িক নানান বিষয়ে। বাংলা একাডেমি ও বাংলা সাহিত্যর খুঁটিনাটি বিষয় নিয়েও জ্ঞানগর্ভ আলোচনা হয় এখানে। যারা এসব আলোচনা পছন্দ করেন তারা বিকালে শুরু হওয়া আলোচনা শুনতে চলে আসেন। আর সন্ধ্যার পরে মেলামঞ্চের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নামে মানুষের ঢল। বিশেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আশপাশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে অনেক শিক্ষার্থী কেবল সন্ধ্যার এ অনুষ্ঠান উপভোগ করতেই মেলায় আসেন। দেশের অনেক নামিদামি শিল্পীরা এখানে গান পরিবেশন করেন। এর বাইরে চলে কবিতা আবৃত্তি ও নাটক পরিবেশন। বাংলা একাডেমির বর্ধমান হাউসের সামনের মূলমঞ্চের এ অনুষ্ঠানে তখন তিল ধারণেরও ঠাঁই থাকে না। ফলে বই কেনার পাশাপাশি বিনোদনের এই ব্যবস্থাও মেলায় আসা মানুষের কাছে ভালো সমাদর পাচ্ছে। বিশেষ করে এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অনেক গুণী শিল্পীর আগমনকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন দর্শনার্থীরা। রথীন্দ্রনাথ রায়, সুবীর নন্দী, সুজিত মোস্তফা, ইফফাত আরা নার্গিস, আঞ্জুমান আরা শিমুল, লীনা তাপসী খান, সুমন মজুমদার এবং বিজন চন্দ্র মিস্ত্রি, দিলরুবা খান, মনিরা ইসলাম, সাদী মহম্মদ, খায়রুল আনাম শাকিল, ফেরদৌস আরার মতো শিল্পীরা ইতোমধ্যে এই অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেছেন। মেলার বাকি দিনগুলোতে আরও অনেক প্রখ্যাত শিল্পীরা এতে অংশগ্রহণ করবেন।
এছাড়া বিভিন্ন শিল্পগোষ্ঠীর পরিবেশনাও নজর কেরেছে আগত দর্শনার্থীদের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা সাহিত্যর শিক্ষার্থী আহমেদ পাভেল বলেন, বাংলা একাডেমির এমন আয়োজনে সত্যিই আমরা মুগ্ধ। অনেক নামিদামি শিল্পীরাও এখানে গান পরিবেশন করছেন। বাঙালির প্রাণের উৎসবে এই আয়োজন না থাকলে মেলা অপূর্ণই মনে হতো।
গতকাল বুধবার ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার দশম দিন। মেলায় নতুন বই এসেছে ১০৫টি। বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশে শিশুসাহিত্য চর্চা : অতীত থেকে বর্তমান শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক শাহীন আখতার। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন আসলাম সানী, রাশেদ রউফ এবং সুজন বড়–য়া। সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট লেখক রশীদ হায়দার।
আজকের অনুষ্ঠানসূচি
আজ ১১ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে বাংলা একাডেমির হীরকজয়ন্তী : অমর একুশে গ্রন্থমেলাÑ অতীত থেকে বর্তমান শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন বদিউদ্দিন নাজির। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন মুহম্মদ জাহাঙ্গীর, ড. জালাল আহমেদ এবং খান মাহবুব। সভাপতিত্ব করবেন ইমেরিটাস প্রকাশক মহিউদ্দিন আহমদ। এছাড়া সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
নতুন বই :   ‘ভূমেন্দ্র গুহের সম্পাদনা ও ভূমিকায় ‘জীবনানন্দ দাশের চারটি উপন্যাস : মূলানুগ পাঠ’ প্রকাশিত হয়েছে বেঙ্গল পাবলিকেশন্স থেকে; এস. এম. আব্দুর রউফের ‘প্রেম ও ফুল’ প্রকাশ করেছে ল্যান্ডমার্ক এডুকেশন; আবু হানিফ হৃদয়ের ‘চোখের জল’ প্রকাশ এনেছে আকাশ প্রকাশনী; গোলাম রাব্বানীর ‘দীর্ঘশ্বাসে দাঁড়ি’ প্রকাশিত করছে সব্যসাচী প্রকাশনী থেকে; মহান মুক্তিযুদ্ধে ইপিআরের (বর্তমান বিজিবি) অবদানের খ-চিত্র নিয়ে রচিত ‘মুক্তিযুদ্ধে ইপিআর (বর্তমান বিজিবি)’ শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে বিজিবি সদর দপ্তর পিলখানায় এই বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় বইটি পাওয়া যাচ্ছে আপন প্রকাশ এবং পিয়াল প্রিন্টিং অ্যান্ড পাবলিকেশন্সে।    


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত